Home » SEO » Keyword research » কীওয়ার্ড রিসার্চ ও ১০ সেরা ফ্রী কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস ২০২১
কীওয়ার্ড রিসার্চ

কীওয়ার্ড রিসার্চ ও ১০ সেরা ফ্রী কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস ২০২১

কীওয়ার্ড রিসার্চ

কীওয়ার্ড হল কোনো পণ্য, পরিষেবাদি এবং কোনো সামগ্রী অনুসন্ধান করার সময় আপনার টার্গেট কাস্টমার যে শব্দ বা বাক্যাংশ

ব্যবহার করে। কোনো পণ্য বা সেবা দ্রুত ও সহজে গ্রাহকের কাছে পৌঁছানোর জন্য সঠিক কীওয়ার্ড ব্যবহারের কোনো বিকল্প

নেই। আপনাকে টার্গেট কাস্টমারের নিকট পৌঁছানোর জন্য অবশ্যই আপনার পণ্য বা পরিষেবা সম্পর্কিত কীওয়ার্ড নির্বাচন

করতে হবে। তবে কীওয়ার্ড নির্বাচন করতে হলে খুব ভালভাবে রিসার্চ করা প্রয়োজন। নাহলে আপনি আশানুরূপ ফল পেতে ব্যর্থ

হতে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক আমরা কীভাবে কীওয়ার্ড রিসার্চ করব।

কীওয়ার্ড রিসার্চ করবেন কীভাবেঃ

কীওয়ার্ড সম্পর্কে পর্যাপ্ত ধারণা থাকা অবশ্যই ভাল। তবে আপনি কীভাবে জানবেন কোনটি সবচেয়ে ভাল কীওয়ার্ড এবং কোন

কীওয়ার্ড নিয়ে কাজ করলে সবচেয়ে ভাল ফলাফল পাওয়া সম্ভব। সহজ কোনো কীওয়ার্ড সিলেক্ট করার আগে অবশ্যই সেটা

সম্পর্কে ভালভাবে বিশ্লেষণ করতে হবে এবং বাছাই করে বের করতে কোন কীওয়ার্ডটি সবচেয়ে ভাল। আর কীওয়ার্ডগুলো বাছাই

করার জন্য কিছু এসইও মেট্রিকগুলি ব্যবহার করা হয়। আসুন এমন কিছু কীওয়ার্ড মেট্রিক সম্পর্কে জেনে নেই।

১. সার্চ ভলিউমঃ

সার্চ ভলিউম হচ্ছে প্রতি মাসে কোনো কীওয়ার্ডের অনুসন্ধানের পরিমাণ। ভিজিটররা যে কীওয়ার্ডটি বেশি সার্চ করে সেই

কীওয়ার্ডটা বেঁছে নেওয়াই সবচেয়ে ভাল।

আমরা এখানে দেখতে পাচ্ছি ডিজিটাল মার্কেটিং কীওয়ার্ডটি সবচেয়ে বেশি বার সার্চ করা হয়েছে।

  • এটি অনুসন্ধানের সংখ্যা অনুসন্ধানকারীর সংখ্যা নয়। এমনও রয়েছে যেখানে কেউ মাসে একাধিকবার কীওয়ার্ড অনুসন্ধান করতে পারে। এই অনুসন্ধানগুলো অনুসন্ধানের পরিমাণে অবদান রাখে যদিও একই ব্যক্তি একই কীওয়ার্ড বার বার অনুসন্ধান করছেন।

  • এটি এমন নয় যে আপনার ওয়েবসাইটের র‍্যাঙ্কিংয়ের মাধ্যমে ট্রাফিক পাবেন। এটি সম্পূর্ণ কীওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে হয়ে থাকে। এমনও হতে পারে আপনি সার্চ ইঞ্জিন রেজাল্ট পেইজে (SERP) এক নম্বর র‍্যাঙ্কে অবস্থান করছেন তবে কীওয়ার্ড থেকে আপনার ট্র্যাফিক খুব কম।

২. কীওয়ার্ড ডিফিকাল্টিঃ

এসইও পেশাদাররা সাধারণত কোনও কীওয়ার্ডের র‍্যাঙ্কিংয়ের অসুবিধাটি পরিমাপ করেন। অর্থাৎ তাদের টার্গেট কীওয়ার্ডের জন্য

শীর্ষস্থানীয় পৃষ্ঠাগুলি দেখে। এটিকে র‍্যাঙ্ক করা কতটা কঠিন বা সহজ হবে তা বিচার করার জন্য তারা কীওয়ার্ড ডিফিকাল্টি

পরিমাপ করেন। যে বিষয়গুলো বিবেচনা করে কীওয়ার্ড ডিফিকাল্টি পরিমাপ করা হয়ে থাকে সেগুলো হচ্ছেঃ

  • ব্যাকলিঙ্কের সংখ্যা

  • ডোমেন রেটিং

  • কন্টেন্টের দৈর্ঘ্য, প্রাসঙ্গিকতা, ইউনিক

  • টার্গেট কীওয়ার্ড, synonym

  • অনুসন্ধানের উদ্দেশ্য

  • ব্র্যান্ডিং ইত্যাদি।

৩. Cost per click (CPC):

কীওয়ার্ড রিসার্চ করে সার্চ ইঞ্জিন রেজাল্ট পেইজের ফলাফলে প্রতিটি ক্লিকের জন্য কত অর্থ প্রদান করতে হয় সেটাই হচ্ছে Cost

per click। প্রতিটি ওয়েবসাইটে গুগল বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতি ক্লিকে গড় ব্যয়।

৪. ক্লিকঃ

ভিজিটর গুগলে যে কোনো কিছু অনুসন্ধান করতে পারে তবে এর অর্থ এই নয় যে তারা সকলেই অনুসন্ধান ফলাফলগুলিতে ক্লিক

করে এবং শীর্ষস্থানীয় পৃষ্ঠাগুলি ভিজিট করে। এখানে কীওয়ার্ড এক্সপ্লোরারে ক্লিক মেট্রিক কার্যকর হয়। এটি আপনাকে একটি

কীওয়ার্ড অনুসন্ধান এবং ফলাফলগুলোর মাসিক ক্লিকের সংখ্যা কত সেটা সম্পর্কে ধারণা দেয়।

শীর্ষস্থানীয় ফ্রী কীওয়ার্ড রিসার্চ এবং ট্র্যাকিং টুলস

১.কীওয়ার্ড সার্ফারঃ

কীওয়ার্ড রিসার্চ

কীওয়ার্ড সার্ফার হল ক্রোমের একটি সহজ বিনামূল্যে এক্সটেনশন যা মূলত গুগল সার্চ রেজাল্ট পেইজে কোনো প্রশ্নের জন্য

আনুমানিক গ্লোবাল এবং মাসিক সার্চ ভলিউম দেখায়। এটি সার্ফার এসইওর একটি অংশ। কীওয়ার্ড সার্ফার “Keywords

everywhere” এর মতো জনপ্রিয় টুলগুলোর মতো একইভাবে কাজ করে। কীওয়ার্ড সার্ফারের বিকাশকারীরা এই সরঞ্জামটিকে

চিরতরে ১০০% ফ্রী রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

২. গুগল ট্রেন্ডস

গুগল ট্রেন্ডস হচ্ছে ট্রেন্ডস অনুসন্ধান বৈশিষ্ট্য যা গুগল অনুসন্ধানে সবচেয়ে জনপ্রিয়। গ্রাহকরা যে কীওয়ার্ডগুলো সবচেয়ে বেশি

জানতে গুগলে সার্চ করে এবং যে বিষয়গুলো সম্পর্কে চায় জানতে সেটাই গুগল ট্রেন্ডস। কোন বিষয়টির প্রতি সবার আগ্রহের

প্রবণতা বাড়ছে বা কমছে তা গুগল ট্রেন্ডসের মাধ্যমে দেখা যায়। গুগল ট্রেন্ডস সময়ের সাথে সাথে একটি কীওয়ার্ডের আপেক্ষিক

অনুসন্ধানের জনপ্রিয়তার দৃশ্যধারণ করে।এটি সময়ের সাথে সাথে এবং ভৌগলিক অবস্থানগুলোতে কীওয়ার্ডের জনপ্রিয়তা

দেখায়। আপনি একই গ্রাফে বেশ কয়েকটি কীওয়ার্ড প্লট করতে এবং তুলনা করতে পারেন।

৩. গুগল সার্চ কনসোলঃ

গুগল সার্চ কনসোল অর্গানিক অনুসন্ধানে ওয়েবসাইটের কার্যকারিতা ট্র্যাক করতে সহায়তা করে। এটি ইতিমধ্যে যে কীওয়ার্ডের

জন্য ওয়েব পেইজটি র‍্যাঙ্ক করেছে সেগুলো সম্পর্কে প্রচুর তথ্য সরবরাহ করে। গুগল সার্চ কনসোল SERP তে অবস্থান এবং ক্লিক

রেট সহ আপনার সাইটে যে কীওয়ার্ডগুলো রয়েছে তার একটি তালিকা সরবরাহ করে। প্রতিটি SERP পজিশনের একটি বহুল

স্বীকৃত ক্লিক রেট বেঞ্চমার্ক রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, প্রথম অবস্থানে একটি কীওয়ার্ডের প্রায় ৩০% ক্লিক রেট থাকার আশা করা

উচিত। প্রতিটি ক্রমাগত অবস্থান গড়ে ৫% হ্রাস পায় এবং SERP প্রথম পৃষ্ঠায় শেষ চারটি অবস্থান প্রায় ৩% ক্লিক রেট পায়।

আপনি দেখতে পাচ্ছেন যে কোনো কীওয়ার্ড তার SERP অবস্থান ক্লিক রেট বেঞ্চমার্কের পিছনে পড়েছে কিনা। ক্লিক রেট

বাড়ানোর জন্য, আপনি আপনার স্নিপেটগুলিতে কাজ করতে পারেন – একটি আকর্ষণীয় শিরোনাম দিতে পারেন। মেটা

ডেসক্রিপশন অপটিমাইজড করতে পারেন, স্কিমা মার্কআপ প্রয়োগ করতে পারেন।

৪. Ahrefs কীওয়ার্ড এক্সপ্লোরার

Ahrefs কীওয়ার্ড এক্সপ্লোরার একটি এসইও প্ল্যাটফর্ম। এটি প্রচলিত এবং প্রতিযোগী ভিত্তিক কীওয়ার্ড গবেষণা উভয়কেই সমর্থন

করে। Ahrefs কীওয়ার্ড এক্সপ্লোরার আপনাকে প্রতিটি কীওয়ার্ডের উপর গভীরতর তথ্য দেয়। আপনি এর মাধ্যমে জানতে পারবেন

যে কতজন অনুসন্ধানকারী কোন ফলাফলটিতে কতবার ক্লিক করেন।

৫. উবার সাজেস্টঃ

উবারসগেষ্ট একটি ফ্রী অনলাইন সরঞ্জাম যা আপনাকে আপনার কন্টেন্ট মার্কেটিং strategy উন্নত করতে ও প্রসারিত করতে

কীওয়ার্ড ধারণা তৈরি করতে সহায়তা করে। আপনি ব্লগ পোস্ট লিখছেন বা আপনার প্রতিযোগীর সাফল্য অনুকরণ করার চেষ্টা

করছেন এ বিষয়ে উবারসাগেষ্ট আপনাকে সহায়তা করবে।এই সরঞ্জামটি আপনাকে যে কীওয়ার্ডগুলি ব্যবহার করতে চান সে

সম্পর্কিত প্রাসঙ্গিক তথ্য দেবে। যেমনঃ

  • সার্চ ভলিউম

  • Cost per click

  • SEO difficulty

৬. গুগলঃ

গুগল সম্ভবত সবচেয়ে কার্যকর কীওয়ার্ড গবেষণা সরঞ্জাম। প্রায় অসীম সংখ্যক কীওয়ার্ডের আইডিয়া উৎপন্ন করার জন্য গুগল

যথেষ্ট। গুগলে প্রতিদিন অসংখ্য ট্রাফিক এসে বিভিন্ন কীওয়ার্ড সার্চ করে। এবং গুগল সেটা স্টোর করে। আমরা যখন গুগল কিছু

লিখে সার্চ করি তখন ওই কীওয়ার্ড গুলো আমাদের দেখায়। আমরা সেখান থেকেই যে কীওয়ার্ডটি সবচেয়ে বেশি সার্চ করা হয়

সেটা সিলেক্ট করতে পারি।

নতুনদের জন্য “People Also ask” বক্সটি কীওয়ার্ড রিসার্চের জন্য সহায়তা করে। অনুসন্ধানের উদ্দেশ্য বোঝার ক্ষেত্রে গুগল

আপনার সেরা বন্ধু।

কীওয়ার্ড রিসার্চ

৭. Sloove:

Sloove গুগলের সাথে সর্বাধিক প্রাসঙ্গিক কীওয়ার্ডগুলো উন্মোচনের জন্য একটি দুর্দান্ত সরঞ্জাম। আপনার কীওয়ার্ড গবেষণার

বাইরেও আপনার ব্লগ পোস্ট বা সাইটে ট্র্যাফিক ড্রাইভিংয়ের জন্য আপনার প্রয়োজনীয় কীওয়ার্ডগুলো পিনপয়েন্ট করার জন্য

প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করতে পারেন।

৮. গুগল অ্যাডস কীওয়ার্ড প্ল্যানারঃ

গুগল কীওয়ার্ড প্ল্যানারকে কখনও কখনও কীওয়ার্ড গবেষণা সরঞ্জামগুলির গুরুত্বপূর্ণ অংশ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। এটি

অ্যাক্সেস করার জন্য আপনার অবশ্যই একটি অ্যাডওয়ার্ডস অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে এবং কোনো অর্থ প্রদান না করেই আপনি

এটি ব্যবহার করতে পারবেন। গুগল কীওয়ার্ড প্ল্যানার আপনাকে কিছু পরিসংখ্যান দেখায় যেমন গড় মাসিক অনুসন্ধান,

প্রতিযোগিতার স্তর (উচ্চ, মাঝারি বা নিম্ন), প্রতি ক্লিকের গড় ব্যয় এবং আরও অনেক কিছু। এটি আপনাকে কীওয়ার্ডের সঠিক

পরামর্শ দেয় না তবে এটি এটি আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যায় এবং উপলভ্য অন্যান্য সরঞ্জামগুলির চেয়ে আরও প্রতিশব্দ এবং

প্রকারের পরামর্শ দেয়।

৯. SEMrush:

SEMrush কীওয়ার্ড ম্যাজিক টুল কীওয়ার্ড গবেষণার জন্য ব্যবহার করার একটি সহজ সরঞ্জাম এবং এটি ভাল তথ্য সরবরাহ করে।

খরচ ছাড়াই ব্যবহারকারীরা প্রতিদিন ১০ টি অনুরোধ সম্পাদন করতে পারে। এটি শুধুমাত্র কীওয়ার্ড অ্যানালিটিকসে প্রতিদিন ১০

টি কীওয়ার্ড রিসার্চ সম্পাদন করতে পারে।

১০. মোজঃ (MOZ)

মোজ হল একটি এসইও সরঞ্জাম যা আপনি কীওয়ার্ডগুলো গবেষণা করতে ব্যবহার করতে পারেন। এর কীওয়ার্ড এক্সপ্লোরারে

আপনি মূল কীওয়ার্ডটি সার্চ করতে পারেন । তবে মোজ বাকি টুলগুলোর চেয়ে আলাদা এটি আপনাকে যে কীওয়ার্ড আইডিয়া

দেবে যা আপনি এটি অন্য কোথাও খুঁজে পাবেন না। এটি কোনও কীওয়ার্ডের জন্য অর্গানিক ক্লিক রেট দেখায়, যেহেতু আপনি

কীওয়ার্ডগুলোতে সর্বাধিক ক্লিক চান। এরকম আরো অনেক ফ্রী ও পেইড কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস রয়েছে। কিন্তু এই টুলগুলো

সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং বেশি ব্যবহৃত হয়।

শেষকথাঃ

কীওয়ার্ডগুলির বিষয়ে এগুলি নিয়ে চিন্তা করার অনেক কিছুই আছে। কেবলমাত্র সঠিক কীওয়ার্ডগুলি খুঁজে পাওয়া যথেষ্ট নয়।

একটি ওয়েবসাইটকে র‍্যাঙ্কিংয়ে আনার জন্য এগুলি কীভাবে ব্যবহার করতে হয় তাও আপনাকে জানতে হবে। কীওয়ার্ড কৌশলটি

সাফল্যের জন্য আপনার একটি সংগঠিত পরিকল্পনা থাকা দরকার। সঠিক কীওয়ার্ড রিসার্চ টুলস এবং সেগুলো কীভাবে ব্যবহার

করতে হয় তা জেনে রাখা। তবে আপনাকে আপনার গ্রাহকদের বিষয়ে ভালভাবে জানতে হবে এবং কৌশলগতভাবে চিন্তা করতে

হবে। এই আর্টিকেলটি আপনার অবশ্যই কীওয়ার্ড রিসার্চে সহায়তা করবে এবং আশা করি সার্চ ইঞ্জিনের ফলাফলগুলোতে

আপনার র‍্যাঙ্ক বৃদ্ধি করতে পারবেন।